নতুন ইনিংস শুরু করলেন ‘নিষিদ্ধ’ স্মিথ

Spread the love

জড়িয়েছেন বল টেম্পারিংয়ের মতো নীতি বিরোধী কাজে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এক বছরের নির্বাসন দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। একাধিক ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলছেন। এত কিছুর মধ্যে শুরু করেছেন জীবনের নতুন ইনিংস।

জড়িয়েছেন বল টেম্পারিংয়ের মতো নীতি বিরোধী কাজে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এক বছরের নির্বাসন দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। একাধিক ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলছেন। এত কিছুর মধ্যে শুরু করেছেন জীবনের নতুন ইনিংস।

বোলিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে মুহূর্তেই জীবনযাপন বদলে যায় অস্ট্রেলিয়ার সাবেল অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের। সম্মান-মর্যাদার পাশাপাশি কিছুটা পিছিয়ে পড়েছেন অর্থনৈতিকভাবেও। একের পর এক স্পন্সররা মুখ ফিরিয়ে নিতে থাকে। তবে এমন খারাপ সময়ও স্মিথের মুখে হাসি ফুটিয়েছে তার জীবনে আসা তার স্ত্রী। হ্যা শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন ২৯ বছর বয়সী স্মিথ।

সাদা পোশাকে দীর্ঘদিনের বান্ধুবি উইলিসের সঙ্গে কালো স্যুটে হাস্যোজ্জ্বল স্মিথ বিয়ের সাজে বেশ নজর কাড়েন। ২০১১ সাল থেকে উইলিসের সঙ্গে পরিচয় স্মিথের। পরিচয় থেকে পরিনয়। ২০১৭ সালে জুনে ম্যানহাটনে নাটকীয় ভঙ্গিতে হাঁটু গেড়ে বসে উইলিসকে বিয়ের প্রস্তাব দেন স্মিথ।

খুব বেশি আয়োজন নয়। কাছের কিছু মানুষের উপস্থিতিতে দীর্ঘ সাত বছরের প্রণয়কে পরিনতি দেন স্মিথ-উইলিস। দুই পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি স্মিথ-উইলিসের বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া দলের স্মিথের সতীর্থ অ্যারন ফিঞ্চ, উসমান খাজা, ন্যাথান লিও, মিশেল মার্শ, প্যাট কামিন্সসহ বেশ কয়েকজন অজি ক্রিকেটার ও তাদের স্ত্রীরা।

বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে ছবি পোস্ট করে নিজেই জানান স্মিথ। ছবির ক্যাপশনে লেখেন, ‘আজকের দিনটা আমার কাছে খুব স্পেশাল। প্রিয় বন্ধুর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলাম। উইলিস তোমায় আজ দারুণ সুন্দরী লাগছে।’

বোলিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে মুহূর্তেই জীবনযাপন বদলে যায় অস্ট্রেলিয়ার সাবেল অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের। সম্মান-মর্যাদার পাশাপাশি কিছুটা পিছিয়ে পড়েছেন অর্থনৈতিকভাবেও। একের পর এক স্পন্সররা মুখ ফিরিয়ে নিতে থাকে। তবে এমন খারাপ সময়ও স্মিথের মুখে হাসি ফুটিয়েছে তার জীবনে আসা তার স্ত্রী। হ্যা শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন ২৯ বছর বয়সী স্মিথ।

সাদা পোশাকে দীর্ঘদিনের বান্ধুবি উইলিসের সঙ্গে কালো স্যুটে হাস্যোজ্জ্বল স্মিথ বিয়ের সাজে বেশ নজর কাড়েন। ২০১১ সাল থেকে উইলিসের সঙ্গে পরিচয় স্মিথের। পরিচয় থেকে পরিনয়। ২০১৭ সালে জুনে ম্যানহাটনে নাটকীয় ভঙ্গিতে হাঁটু গেড়ে বসে উইলিসকে বিয়ের প্রস্তাব দেন স্মিথ।

খুব বেশি আয়োজন নয়। কাছের কিছু মানুষের উপস্থিতিতে দীর্ঘ সাত বছরের প্রণয়কে পরিনতি দেন স্মিথ-উইলিস। দুই পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি স্মিথ-উইলিসের বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া দলের স্মিথের সতীর্থ অ্যারন ফিঞ্চ, উসমান খাজা, ন্যাথান লিও, মিশেল মার্শ, প্যাট কামিন্সসহ বেশ কয়েকজন অজি ক্রিকেটার ও তাদের স্ত্রীরা।

বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে ছবি পোস্ট করে নিজেই জানান স্মিথ। ছবির ক্যাপশনে লেখেন, ‘আজকের দিনটা আমার কাছে খুব স্পেশাল। প্রিয় বন্ধুর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলাম। উইলিস তোমায় আজ দারুণ সুন্দরী লাগছে।’

What is Your Opinion?